ব্লগিং সম্পর্কে গুরুত্বপূর্ণ প্রশ্ন ও এর সমাধান

ব্লগিং কী? ব্লগিং হলো এমন একটি উপায় যার মাধ্যমে আপনার জ্ঞান-কে সকলের নিকট ছড়িয়ে দিতে পারেন।এর ফলে একদিকে আপনি যেমন উপকৃত হতে পারেন তেমনি অন্যান্য মানুষও আপনার লেখা পড়ে উপকৃত হবে।এবং যখন আপনি আপনার লেখার জন্য রিসার্চ করবেন তখন আপনার জ্ঞানের ভান্ডার হবে সমৃদ্ধ।ব্লগিং সম্পর্কে সকল প্রশ্ন, ব্লগিং এর জন্য প্রস্তুতি গ্রহন, ব্লগিং করে টাকা আয় করার উপায় ও ব্লগের সুবিধা সম্পর্কে আইডিয়া দেওয়ার চেষ্টা করা হয়েছে এই নিবন্ধ-টিতে।

Bangla All Tips

কেন বা কোন অবস্থায় ব্লগিং করবেন? ব্লগিং করার সাথে আর্থিক ও জ্ঞানের পারস্পরিক সম্পর্ক রয়েছে।আর একারনে আপনি যে কোন সময় ব্লগিং শুরু করতে পারেন।শিক্ষার যেমন কোন বয়স নেই তেমনি জন্ম থেকে মৃত্যু পর্যন্ত অর্থেরও প্রয়োজন রয়েছে।সকল দিক বিবেচনা করে একটি মানুষের ব্লগিং করার সময় হলো শিক্ষা জীবন। কারন এসময় হলো জ্ঞান চর্চার সময়।অপরদিকে একজন শিক্ষার্থী আর্থিক দিক থেকে পরিবারের উপর নির্ভরশীল থাকেন। এসময় কাজ করে অর্থ উপার্জন করা খুবই অসম্ভব ও কস্টসাধ্য ব্যাপার।এবং এর বিরূপ প্রভাব বিস্তার করে শিক্ষা জীবনে।তাই শিক্ষার মাধ্যমে অর্থ উপার্জন করা গেলে এর থেকে ভালো উপায় আর কি হতে পারে।

আপনি যদি একটি ব্লগ বা ওয়েবসাইট দাড় করাতে পারেন তাহলে এটি হতে পারে আপনার সারাজীবনের স্থায়ী আয়ের উৎস।বর্তমান সময় এমন অনেক ব্যক্তি রয়েছে যাদের আয়ের প্রধান উৎস হলো ব্লগিং।তবে এক্ষেত্রে শিক্ষাকে আয়ে রুপান্তর করার জন্য দরকার ধৈর্য ও অপেক্ষার।

কি নিয়ে লেখালেখি শুরু করবেন? যারা ব্লগিং করতে চান তারা প্রথমেই যে কঠিন প্রশ্নের সম্মুখীন হতে হয়।সেটি হলো ব্লগিং এর টপিক হবে কি।এমন অনেকেই আছেন যারা টপিক নির্ধারণ করতে পারার অভাবে শুরুই করতে পারেন না।আসুন এই কঠিন প্রশ্নের সহজ সমাধান বের করার চেষ্টা করি।

আচ্ছা আপনার কোন বিষয় আগ্রহ আছে?কোন কাজটি আপনি ভালো পারেন? বা কোন বিষয় জানার আগ্রহ সবচেয়ে বেশি? ধরে নিলাম আপনি একজন কৃষক। তাহলে নিশ্চয়ই কৃষি কাজ আপনি ভাল পারেন।আপনি বিভিন্ন শাক-সবজি উন্নত উপায় চাষাবাদ করেন।তাহলে কিন্তু আপনি এই কৃষিবিদ্যার উপরই একটি ব্লগ তৈরি করতে পারেন।অথবা আপনি একজন গৃহিণী এর পাশাপাশি আপনি বিভিন্ন ধরনের খাবার রান্নায় পটু। তাহলে এটিও আপনার টপিক হতে পারে।

ব্লগে লেখালেখি-এর জন্য আপনার যে টেক বা আইটি বিষয়েই জানতে হবে তা কিন্তু নয়।বরং আপনি যে বিষয় জানেন সেটিকেই অস্ত্র করে সামনে আগাতে পারেন।আপনি এমন একটি বিষয় খুজে বের করতে পারবেন যা ইন্টারনেটে নেই? না পারবেন না!আপনি যা দিয়েই সার্চ করুন না কেন রেজাল্ট আপনি পাবেনই।তাই কোন বিষয়ে শুরু করবেন না ভেবে আপনি কি পারেন তা চিন্তা করুন।তাহলে আপনার এই কঠিন প্রশ্নের সমাধান পেয়ে যাবেন।

ব্লগ বা ওয়েবসাইটের আয় সম্পর্কে ভ্রান্ত ধারণা- ব্লগ বা ওয়েবসাইট থেকে আয় সম্পর্কে আমাদের অনেকের মাঝেই রয়েছে বিভিন্ন ভ্রান্ত ধারণা। আমরা ব্যক্তিগত অভিজ্ঞতা-র আলোকে বলতে পারি অনেকই ওখনো মনে করেন ব্লগে ভিজিটর আসলেই আয় হয়।এবং নির্দিষ্ট পরিমান অর্থ প্রদান করা হয়। আবার অনেকেই মনে করেন একজন পাঠক ব্লগ ভিজিট করতে যে পরিমান ডাটা খরচ করে তার উপর অর্থ প্রদান করা হয়।

কিন্তু না এসকলই নিতান্তই ভ্রান্ত ধারণা ছাড়া আর কিছুই না।একটি ব্লগে প্রধানত আয় আসে বিজ্ঞাপন থেকে।আপনার ব্লগটি যদি জনপ্রিয় হয়ে যায় তখন আপনি বিভিন্ন কোম্পানি-র বিজ্ঞাপন সরাসরি প্রদান করতে পারবেন।আবার অনেক এডস(ads) কোম্পানি আছে যারা বিভিন্ন কোম্পানির থেকে এসকল বিজ্ঞাপন সংগ্রহ করে এবং বিভিন্ন ওয়েব সাইটে প্রকাশ করে।এর ফলে তারা আয়ের নির্দিষ্ট পরিমান অর্থ আপনাকে প্রদান করবে। আর এই কাজের জন্য রয়েছে গুগল এডসেন্স। যা বর্তমান সময়ে সবচেয়ে জনপ্রিয় মাধ্যম।এর বাইরেও অনেক কোম্পানি রয়েছে।যাদের মাধ্যমে আপনার ব্লগে বিজ্ঞাপন দেখিয়ে আয় করতে পারবেন।

ব্লগ থেকে আয় করার আরেকটি জনপ্রিয় উপায় হলো এফিলিয়েট মার্কেটিং। আপনি ব্লগের মাধ্যমে বিভিন্ন সাইটের এফিলিয়েট মার্কেটিং করে আয় করতে পারেন।এছাড়াও আরে অনেক উপায় রয়েছে ব্লগ থেকে আয় করার।

Similar Posts:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *